ওয়াজের ময়দানে নিষিদ্ধ হচ্ছেন তাহেরী

889

ওয়াজের ময়দানে নিষিদ্ধ হতে যাচ্ছেন গিয়াস উদ্দিন তাহেরী সম্প্রতি তার বিতর্কিত কথাবার্তা ও ইসলাম নিয়ে অশোভন মন্তব্য কুরুচিপূর্ণ গান বাজনা সাধারন মানুষের কাছে ইসলাম সম্পর্কে বিরূপ ধারনার জন্ম দিচ্ছে।

দেশের ইসলামী চিন্তাবিদগন ও ইসলামী ফাউন্ডেশনের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা মনে করেন সুন্নি নামধারী তথাকথিত বিতর্কিত বক্তা গিয়াস উদ্দিন তাহেরী দেশের সাধারণ মানুষের সরল বিশ্বাস নিয়ে ধর্মের নামে ব্যবসা করছেন। এবং ফেসবুক ইউটিউবে ভাইরাল হওয়ার জন্য ওয়াজ মাহফিলের নামে একের পর এক নতুন নতুন শিশুর জন্ম দিচ্ছেন। যার সাথে প্রকৃত ইসলামের কোন সম্পর্ক নাই।

তার গাওয়া ‘মুরশিদ আমার’ গানটি ইতিমধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে যা বাংলাদেশের বিভিন্ন ধরনের বর্ণের মানুষ তাদের ঈদ পূজা-পার্বণ এবং পিকনিকে বাজাচ্ছে জনগন।
এরপর সে ধর্মের নামে দোহায় দিয়ে “আল্লাহর ধন রাসূলকে দিয়ে আল্লাহ গেছেন গায়েব হইয়া” এমন কুফরি কথাবার্তা বলে দেশের সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিচ্ছেন।

দেশের বিভিন্ন জেলার আলেম-ওলামারা সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নালিশ জানিয়েছেন। সরকারের গোয়েন্দা বিভাগ ইতিমধ্যে মাঠে নেমেছেন তাহেরীর বিরুদ্ধে তথ্য-প্রমাণ সংগ্রহ করতে।

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে গিয়াস উদ্দিন তাহেরী ওয়াজ মাহফিলের নামে নাচানাচি ও গান-বাজনা করে থাকে। সেখানে ইসলামের এবং কোরআন হাদীসের কোন কথাই তিনি বলেন না। গান-বাজনার পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন আলেমদের নিয়ে সমালোচনায় বেশি ব্যস্ত থাকেন।
এবং চিৎকার চেঁচামেচির মাধ্যমে যুবসমাজকে ধর্মীয় সহিংসতা উস্কে দেওয়ার অভিযোগ রযেছে তার বিরুদ্ধে।

পবিত্র ও শান্তির ধর্ম ইসলামকে মানুষের কাছে হাসির পাত্র বানিয়ে দিচ্ছে নেই গিয়াস-উদ্দিন-তাহেরী এমন অভিযোগ করেছেন দেশের আলেম সমাজের প্রতিনিধিরা।
গোয়েন্দা সংস্থার বিভিন্ন দপ্তর হতে তাহেরীর বিরুদ্ধে গোপন তদন্ত শুরু হয়েছে। যেকোনো মুহূর্তে বাংলাদেশের ওয়াজের ময়দান হতে নিষিদ্ধ হতে পারেন, এই বিতর্কিত বক্তা গিয়াস উদ্দিন তাহেরী।