পুলিশের ওপর হামলাকারী বেলালকে দেখে ক্রাস খেলো হাজারো তরুনী

125

গত মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে নগরীর সিটি বাইপাস সংলগ্ন ঘোড়া চত্বরে পেশাগত দায়িত্ব পালন কালে মোটরসাইকেলের কাগজপত্র দেখতে চাওয়ায় সার্জেন্ট বিপুল ভট্টাচার্যর উপরে হামলাকারী বেলাল হোসেনকে নাটোর থেকে গ্রেফতার করেছে বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত্রী ১টার সময় বোয়ালিয়া মডেল থানার সহকারী কমিশনার এসি ফারজিনা নাসরীর ও থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি নিবারন চন্দ্র বর্মনের দিক নির্দেশনায় নাটোর হরিশপুর বাইপাস এলাকা থেকে বোয়ালিয়া মডেল থানার এসআই উত্তম,এসআই মতিন আহম্মেদ,টিএস আই নাসির,এ এস আই মনির,এ এস আই নাজমুল অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতার হওয়া যুবক নগরীর রাজপাড়া থানার লক্ষীপুর ভাটাপাড়া এলাকার শামসুল হকের ছেলে বলে জানা গেছে।

গত মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে আরএমপি কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক সার্জেন্ট বিপুলকে দেখতে হাসপাতালে যান এবং তার চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন।

জানা যায়, গত মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর সিটি বাইপাস সংলগ্ন ঘোড়া চত্বরে দায়িত্ব পালনকালে যানবাহনের কাগজ পরীক্ষা করছিলেন সার্জেন্ট বিপুল ভট্টাচার্য। এ সময় ওই রাস্তা দিয়ে বেলাল নামের এক যুবক হেলমেট না পরেই খালি মাথায় মোটরসাইকেল নিয়ে যাচ্ছিলেন। কর্তব্যরত সার্জেন্ট বিপুল তাকে থামিয়ে কাগজপত্র দেখতে চান। কাগজপত্র দেখতে চাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে বেলাল ও তার সহযোগী মিলে কাঠের চলা দিয়ে সার্জেন্টকে পেটাতে শুরু করে। আঘাতে সার্জেন্ট মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয়রা তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে গেলে হামলকারীরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

সার্জেন্টের উপরে হামলাকারী বেলাল হোসেনের ব্যাবহৃত মটরসাইকেল

সার্জেন্টের উপরে হামলাকারী বেলাল হোসেনের ব্যাবহৃত মোটরসাইকেল।

তবে মোটরসাইকেলটি নিয়ে যেতে পারেনি হামলাকারীরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সার্জেন্ট বিপুল ভট্টাচার্যকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। ঐদিন দুপুর আড়াইটার দিকে আরএমপি কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক সার্জেন্ট বিপুলকে দেখতে হাসপাতালে যান এবং তার চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন। হামলাকারীকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার নির্দেশ দেন তিনি।